www.muktobak.com

বোনাস দেয়নি এনটিভি ও নাগরিক; আংশিক ডেইলি স্টার-প্রথম আলো


 মুক্তবাক রিপোর্ট    ২১ মে ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১১:১৪    খবর


করোনা পরিস্থিতিতে পত্রিকার সার্কুলেশন যেমন কমেছে তেমনি কমেছে বিজ্ঞাপনও। তবে টেলিভিশন চ্যানেলের ক্ষেত্রে উল্টো। দর্শক যেমন বেড়েছে তেমনি বিজ্ঞাপন নিয়েও সংকট নেই বললেই চলে। তবু দেশের ব্যবসাসফল দুই টেলিভিশন চ্যানেল এবার কর্মীদের ঈদ বোনাস দেয়নি। আর দেশের শীর্ষ দুটি পত্রিকা ঈদ বোনাস দিয়েছে অর্ধেক। 

প্রথম আলো ও ডেইলি স্টার

করোনা পরিস্থিতিতে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পত্রিকা দুটির বিজ্ঞাপন খাত। তবু দেশের সবচেয়ে ব্যবসাসফল পত্রিকা দুটি ঈদ বোনাস আংশিক দেবে এমনটা ভাবেননি কেউ। কারণ কর্মীদের সুযোগ সুবিধা দেয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের গণমাধ্যম আঙিনায় প্রতিষ্ঠান দুটি উদাহরণ তৈরি করেছে। বিগত দিনগুলোতে বোনাস দেয়া হতো দুটি। এবছর দেয়া হয়েছে ওয়েজবোর্ড নির্ধারিত একটি বোনাসেরও অর্ধেক। অর্থাৎ গত ঈদে প্রতিষ্ঠান দুটির যে কর্মী পেয়েছেন ৪০ হাজার টাকা, এবার তাকে দেয়া হয়েছে মাত্র ১০ হাজার টাকা। এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যাখ্যাও দেয়নি কর্মীদের।

 

এনটিভি

ঈদ বোনাস থেকে কর্মীদের বঞ্চিত করেছে ভালো আয়েরপ্রতিষ্ঠান এনটিভি। জনপ্রিয় স্যাটেলাইট চ্যানেল এনটিভির, ঈদের বোনাস হবেনা বলে জানিয়ে দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে এনটিভির সংবাদ কর্মীরা বিদেশে থাকা চেয়ারম্যানকে চিঠি দিয়ে সার্বিক পরিস্থিতির আলোকে, সিদ্ধান্ত পুনঃবিবেচনার অনুরোধও জানায়। কিন্তু সেই আবেদন কাজে আসেনি। টেলিভিশন গুলোর মধ্যে এনটিভিতেই সর্বোচ্চ করোনা আক্রান্ত, তারপরও কর্মীরা কাজ করে গেছেন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে। অভিযোগ, করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলার ক্ষেত্রেও প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজমেন্ট কর্মীদের কাংখিত সহযোগিতা করেনি। এই দুর্যোগের সময় বোনাস না দেয়ায়, হতাশ ও ক্ষুব্ধ সংবাদ কর্মীরা। জানাযায় এখনো এনটিভি বিজ্ঞাপনের মুল্যে শীর্ষে থাকা চ্যানেলগুলোর একটি ।আয়ওভালো।   এবারের ঈদের সময়ও প্রতিষ্ঠানটি অনেক স্পন্সর্ড নাটকসহ ভালো বিজ্ঞাপন পেয়েছে বলে জানা গেছে। তাহলে ন্যায্য পাওনা দিতে সমস্যা কই, সেটা বুঝতে পারছেননা কর্মীরা। গেল ৫ বছর ধরে ইনক্রিমেন্টও বন্ধ আছে এনটিভিতে।

 

নাগরিক টেলিভিশন

প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের মোহাম্মদী গ্রুপের প্রতিষ্ঠান নাগরিক টেলিভিশনেও দেয়া হয়নি ঈদ বোনাস। গ্রুপের অন্য প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও করোনা ঝুঁকি নিয়ে কাজে করে গেছেন কর্মীরা। এতে কর্মীদের আশ্বস্ত করা হয়েছিল বোনাস দেয়া হবে বলে। একাধিক ডেট দেয়া হয় বোনাস দেয়ার। তবে শেষ পর্যন্ত জানিয়ে দেয়া হয়েছে হচ্ছে না এবারের ঈদ বোনাস। অবচ চ্যানেলটির কর্মীরা জানান, আগের তুলনায় বেড়েছে বিজ্ঞাপন। আয় নিয়ে কোনো সমস্যায় নেই নাগরিক টেলিভিশন। 

 

কালেরকণ্ঠ, বাংলাদেশ প্রতিদিন, নিউজ 24

বোনাস না দেয়া তালিকায় আছে কালেরকণ্ঠ, বাংলাদেশ প্রতিদিন, টেলিভিশন চ্যানেল নিউজ 24সহ ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের ছয়টি প্রতিষ্ঠান। কালেরকণ্ঠের কর্মীদের বেতন বকেয়া কয়েকমাসের। 




 আরও খবর