www.muktobak.com

সাংবাদিকতা 'মাছের বাজারে' পরিণতির দায় কার?


 শেখ সিরাজুম মুনিরা নীরা    ৯ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১১:৫৫    মতামত


রিজেন্ট সাহেদের ঘটনা প্রকাশ পাওয়ার পর আপনারা দেখি বিরাট অবাক হচ্ছেন! বিশেষ করে সাংবাদিকরা!
কেন ভাই?
করোনাকালে সাংবাদিকদের চাকরি যাওয়া, বেতন না পাওয়া ইত্যাদি নিয়েও আপনাদের অবাক হওয়া দেখলে আমার অবাক লাগে!
আগের কথা জানি না, তবে গত এক দশকে সাংবাদিকতায় বা গণমাধ্যমে ভয়াবহ অনিয়ম, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, স্বজনলেহন, চাটুকারিতা, প্রবঞ্চনা, প্রতারণা আমিই তো দেখেছি। আপনারাও কী দ্যাখেননি? বুকে হাত দিয়ে বলেন তো!
কোনোদিন দুকলম না লেখা মানুষকে যখন কেবল কোনো ভাইয়ের কাছের লোক হওয়ার যোগ্যতায় সিনিয়র প্রতিবেদক হিসেবে নিয়োগ হয়েছে, তখন প্রতিবাদ করেছেন কখনো? জানতে চেয়েছেন এই নিয়োগ অন্য সংবাদকর্মীদের ভেতরে কী প্রভাব ফেলেছে?
পুরো অফিসকে পেছনে ফেলে কেবল বিশেষ ভাইয়ের লোকদের যখন প্রমোশন বা ইনক্রিমেন্ট দেওয়া হয়েছে, তখন কিছু বলেছেন কখনো?
কেবল অমুক ভাইয়ের বোন, শালী, শালা, ভাতিজা, ছেলে, ভাইয়ের বৌ, ভাই এই যোগ্যতায় কত মানুষ সাংবাদিক হয়েছে, তা কী আপনাদের অজানা?
মন্ত্রি সাহেব বা তার পিএসের সঙ্গে দহরম মহরম থাকার যোগ্যতায় বড় সাংবাদিক হয়ে গেছেন এমন মানুষের সংখ্যাও কম নয় এখানে।
কাউকে চাকরির জন্য রেকমেন্ড করার আগে দেখে নিয়েছেন, সে কতটা 'সহমত ভাই'। কারণ, আপনাদের কাছে, সেটাই সাংবাদিকতা করার যোগ্যতা।
সাংবাদিকতাকে মাছের বাজার বানিয়েছে কারা? যার পেছনে কোনো ভাই নেই, তাকে নিয়োগ দিতে ৫০০ টাকার জন্যও মুলামুলি করেন আপনারা। আর ভাইয়ের রেফারেন্স থাকলে কোনো হাউজের কন্ট্রিবিউটকেও সিনিয়র পোস্টে নিয়োগ দেন। তা সে মিনিমাম নিউজের ইন্ট্রো লিখতে পারুক আর না পারুক! ভাইয়ের লোক, এটাই বড় কথা!
কেবল হাউজের ভেতরের খবর আপনাকে দেবে, এই শর্তে এক লাইন লিখতে না জানা লোককে নিয়োগ দেন নাই সাংবাদিক হিসেবে? বলেন তো? তো সেই লোক এখন আপনার নাম ভাঙায়ে খেলে রাগ হন কেন? আপনাদেরই সৃষ্টি এরা।
এখন এমন ভাব দেখাচ্ছেন যেন, সাংবাদিকতার এই অবস্থা আপনারা বুঝতেই পারেন নাই! এতোদিন কই ছিলেন বলেন তো! আপনাদের দেখে দেখে অবাক হওয়াও ভুলে যাচ্ছি আজকাল।
বিশেষ টু দ্য পাওয়ার ইনফিনিটি দ্রষ্টব্য: আমি একজন চাকরিহীন, ভাইবিহীন, অযোগ্য, সাংবাদিকতার ডিগ্রিবিহীন বেকার সাংবাদিক। আমার কথাকে বেশি আমলে নেবেন না।

লেখক : সাংবাদিক




 আরও খবর